সাপাহারে বাক-প্রতিবন্ধীর শ্লীলতাহানির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের


DBkhobor24 প্রকাশের সময় : মার্চ ১৭, ২০২২, ৫:৩৩ PM /
সাপাহারে বাক-প্রতিবন্ধীর শ্লীলতাহানির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের

স্টাফ রিপোর্টার:

নওগাঁর সাপাহারে বাকপ্রতিবন্ধী (১৯)এক মেয়ের শ্লীলতা হানির চেষ্টায় আনিসুর রহমান (৬২) নামের এক বৃদ্ধের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাটি উপজেলার সদর ইউনিয়নের বড়মির্জাপুর মাদ্রাসাপাড়া গ্রামে ঘটেছে।

এলাকাবাসী ও ভিকটিমের পরিবার সুত্রে জানাগেছে গত রবিবার (১৩ মার্চ) দুপুরে ওই বাক প্রতিবন্ধী মেয়েটির মা পাশের গ্রামে এনজিওর কিস্তি দেওয়ার জন্য যায়। তার বাড়ী ফিরতে দেরী হলে বাক প্রতিবন্ধী ওই মেয়ে মাকে ডাকার জন্য বাড়ীর অদুরে আম বাগানের ভিতর দিয়ে হাঁটতে থাকে।

এসময় তাকে একা পেয়ে পার্শ্ববর্তি বড় মির্জাপুর গ্রামের বাসিন্দা ও মৃত মৃত জফির উদ্দীনের ছেলে প্রভাবশালী আনিসুর রহমান তার পথ রোধ করে অসৎ উদ্দেশ্যে তাকে জড়িয়ে ধরে শ্লীলতাহানীর চেষ্টা চালায়। ঘটনার সময় ওই বোবা মেয়েটির আত্মচিৎকারে কেউ এগিয়ে না আসায় সে স্ব-জোরে ওই বৃদ্ধকে ধাক্কা মেরে ফেলে দিয়ে কাঁদতে কাঁদতে দৌড়ে বাড়ী ফিরে আসে। পরে তার মা বাড়ীতে ফিরে আসলে ইশারায় সে তার মা সহ ওই গ্রামের লোকজনের নিকট সবকিছু খুলে বলে।

এঘটনার পর বাকপ্রতিবন্ধী মেয়েকে সাথে নিয়ে তার মা ও পরিবারের লোকজন অভিযুক্ত আনিসুর রহমানের বাড়ীতে গেলে অভিযুক্ত আনিসুর ও তার পরিবারের লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে বাকপ্রতিবন্ধী ওই মেয়েটির মাকে হুমকি দিয়ে তাড়িয়ে দেয়। স্থানীয় ভাবে বিষয়টি নিয়ে গ্রামে বৈঠক বসলে প্রভাবশালী আনিসুর রহমান সেখানে উপস্থিত হয়নি। বাধ্য হয়ে গত বুধবার সন্ধ্যায় বাকপ্রতিবন্ধী ওই মেয়ের পরিবার জড়িত আনিসুর রহমানের বিরুদ্ধে সাপাহার থানায় নারী শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করে।

উপজেলার বড়মির্জাপুর গ্রামের নুরুল ইসলাম সহ একাধিক এলাকাবাসী বলেন,প্রভাবশালী ওই বৃদ্ধ আনিসুর রহমান ইতোপুর্বেও বেশ কয়েকবার এ ধরনের নারী ঘটিত ঘটনা ঘটিয়েছে। যা স্থানীয় ভাবে গ্রাম্য শালিসের মাধ্যমে তা আপোষ মিমংসা করা হয়েছে। এবিষয়ে অভিযুক্ত আনিসুর রহমানের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করে তাঁকে পাওয়া যায়নি।

এব্যাপারে সাপাহার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তারেকুর রহমান সরকার মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। মামলাটি বর্তমানে তদন্তাধীন আছে। অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেফতারে পুলিশী তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে ।