বিদ্যালয়ের মাঠ যেন ধান শুকানোর চাতাল


DBkhobor24 প্রকাশের সময় : মার্চ ১৩, ২০২২, ৩:৫৪ PM /
বিদ্যালয়ের মাঠ যেন ধান শুকানোর চাতাল

নাসির উদ্দীন শাহ মিলন, নীলফামারী প্রতিনিধি।

নীলফামারীর ডিমলায় বিদ্যালয়ের মাঠ চেনার উপায় নেই, গড়ে উঠেছে ধান শুকনো চাতাল।বিদ্যালয়ের খেলার মাঠ দখল করে ধান শুকানোর কাজ করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। ফলে এলাকার ছেলেমেয়েসহ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ওই মাঠে খেলাধুলা বন্ধ হয়ে গেছে। উপজেলার খালিশাচাপানি ইউনিয়নের ছোটখাতা ২নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনাটি ঘটেছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, বিদ্যালয়ের খেলার মাঠজুড়ে সুতার তৈরি নেট বিছানো হয়েছে। সেখানে ধান শুকাচ্ছেন কয়েকজন নারী। মাঠের একপাশে বেড়া দিয়ে ঘিরে চাষাবাদও হচ্ছে। ফলে বিদ্যালয়ের প্রবেশমুখসহ পুরো মাঠ দখল হয়ে গেছে। এ অবস্থায় শিক্ষক- শিক্ষার্থীদের চলাচলও বন্ধ হয়ে গেছে। শিক্ষার্থীদের দাবি, দ্রুত ধান শুকানোর কাজ বন্ধ করে মাঠটি তাদের খেলার উপযোগী করে দেওয়া হোক।

এ ব্যাপারে ধান শুকাতে আসা আম্বিয়া বেগমের স্বামী আজগর আলী জানান, বিদ্যালয়ের নিজস্ব কোনো খেলার মাঠ নেই। পৈতৃক সূত্রে এ জমির মালিক আমি। তাই এখানে ধান সিদ্ধ করে শুকাতে দিয়েছি।

কয়েকজন অভিভাবক বলেন, মাঠে ধান শুকানো আর চাষাবাদের কারণে বাচ্চাদের খেলাধুলা বন্ধ হয়ে গেছে। এ কারণে তাদের মধ্যে স্কুলে আসার আগ্রহ কমে যাচ্ছে। এ অবস্থায় দ্রুত মাঠ পরিস্কারের ব্যবস্থা করা দরকার।

জানতে চাইলে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নবাব আলী বলেন, বারবার নিষেধ শর্তে ও বিদ্যালয়ের মাঠে ধান শুকানোর কাজ করছেন আজগর আলী ও তার পরিবারের লোকজন। এর আগেও তারা স্কুলের মাঠ দখল করে চাষাবাদ করেছেন। বাঁধা দিলে শিক্ষকদের নামে মিথ্যে মামলা করেন যা এখনো চলমান আছে। আবারও মাঠটি দখলে নেওয়ার পাঁয়তারা করছেন তারা। সংঘর্ষের আশঙ্কায় অনেক অভিভাবক সন্তানকে স্কুলে পাঠাচ্ছে না। ম্যানেজিং কমিটির সভা ডাকা হয়েছে। কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।