1. bdsaifulislam304@gmail.com : DBkhobor24 :
  2. mdroni0939@gmail.com : roni :
নীলফামারীতে "মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গবন্ধুর অবদান " শীর্ষক আলোচনা সভা - দেশবাংলা খবর২৪
৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ| ২৫শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ| শীতকাল| বুধবার| ভোর ৫:৫৪|
শিরোনাম
ডোমারে নির্দিষ্ট সময়ের আগেই স্কুল ছুটি, অভিভাবকদের ক্ষোভ বগুড়ায় গৃহবধুকে ধর্ষণ চেষ্টাকালে আ.লীগ নেতার গোপনাঙ্গ কেটে হত্যার অভিযোগ অসহায় ও শীতার্তদের মাঝে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর শীতবস্ত্র বিতরণ নীলফামারীর কুন্দপুকুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের ত্রি বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত বগুড়ায় ৪০০ টাকা নিয়ে বিরোধে বন্ধুরা মিলে রিয়াজকে হত্যা করে: পুলিশ নগরীতে র‌্যাবের অভিযানে ৪০ কেজি গাঁজাসহ গ্রেপ্তার ৪ নীলফামারীতে পরিবেশ অধিদপ্তরের নিষিদ্ধ পলিথিন ব্যাগ মজুদ করায় জরিমানা উপহারের গাড়ি নিতে গিয়ে জরিমানা গুনলেন হিরো আলম নীলফামারীতে ১লক্ষ ৪ হাজার হেক্টর জমি অন্তর্ভুক্ত হচ্ছে সেচের আওতায় লালমনিরহাটে স্কুল ছাত্র সিক্ত’র উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

নীলফামারীতে “মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গবন্ধুর অবদান ” শীর্ষক আলোচনা সভা

রিপোর্টারের নাম
  • প্রকাশিত সময় বুধবার, ২ মার্চ, ২০২২
  • ২ জন দেখেছেন

নাসির উদ্দিন শাহ মিলন,নীলফামারী প্রতিনিধিঃ

নীলফামারীতে “মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গবন্ধুর অবদান ” শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (২ মার্চ) সদর উপজেলা পরিষদের আয়োজনে পরিষদ চত্বরে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জেসমিন নাহারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহিদ মাহমুদ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মফিজুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের নির্বাহী সদস্য ও বঙ্গবন্ধু পরিষদের সিনিয়ন সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এ.একে.এম আমিনুল হক, বীর মুক্তিযোদ্ধা বাবু বংকু বিহারী রায়, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওয়াদুদ রহমান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সান্তনা চক্রবর্তী, সদর উপজেলা প্রকৌশলী নুর উদ্দিন আহমেদ, সদর উপজেলা সমবায় অফিসার মঞ্জুর মোর্সেদ তালুকদার সহ বীরমুক্তিযোদ্ধা, জনপ্রতিনিধি ও শিক্ষার্থী সহ আরো অনেকে।

মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গবন্ধুর অবদান সম্পর্কে স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধারা বলেন,‘১৯৭০ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করলে পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠীর ক্ষমতা হস্তান্তরের অনীহার কারণে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে বাংলার মুক্তিকামী মানুষ অসহযোগ আন্দোলন শুরু করে।

১৯৭১ সালের ৭ মার্চ রেসকোর্স ময়দানে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণে তিনি স্বাধীনতার ঘোষণা দেন। বজ্রকণ্ঠে উচ্চারণ করেন, ‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম’। ২৫ মার্চ কালরাত্রে পাকিস্তানি হানাদারবাহিনী বাঙালিদের নিধনে অপারেশন সার্চলাইটের মাধ্যমে গণহত্যা শুরু করে।

এ প্রেক্ষাপটে ২৬ মার্চের প্রথম প্রহরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষণা দেন এবং সর্বস্তরের জনগণকে মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ার ডাক দেন। তার বলিষ্ঠ আহবানে বাঙালীরা ঝাপিয়ে পড়ে যুদ্ধে।’আলোচনা সভা শেষে সেখানে সাংস্কৃতিব অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

আপনার সামাজিক মিডিয়ায় সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরও সংবাদ পড়ুন
© All rights reserved © 2023 deshbanglakhobor24