নীলফামারীতে কিশোরী ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা, থানায় এজাহার


DBkhobor24 প্রকাশের সময় : মার্চ ২১, ২০২২, ৫:৫৬ PM /
নীলফামারীতে কিশোরী ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা, থানায় এজাহার

নাসির উদ্দীন শাহ মিলন ,নীলফামারী জেলা প্রতিনিধিঃ

বাড়িতে একা পেয়ে ফুসলিয়ে কিশোরীকে দীর্ঘদিন একাধিকবার ধর্ষনের ফলে ৭ মাসের অন্তসত্ত্বা  হয়ে পড়েছে। এই ঘটনায় জনপ্রতিনিধি ও গণ্যমান্যদের দ্বারস্থ হয়েও সামাজিকভাবে কোন বিচার না পেয়ে লিখিত এজাহার দায়ের করেছে কিশোরীর দিনমজুর বাবা-মা।

রবিবার (২০ মার্চ) নীলফামারীর সৈয়দপুর থানা এজাহার সূত্রে জানা যায়, পৌরসভার অন্তর্গত পাটোয়ারি পাড়া এলাকার দিনমজুর দম্পতির চার মেয়ে। বড় মেয়ের বিয়ে হয়েছে। অন্য তিন মেয়েকে বাড়িতে রেখে স্বামী-স্ত্রী সকালে কাজে বেড়িয়ে যায় এবং রাতে ফেরে।

দ্বিতীয় মেয়ের বয়স ১৭ বছর। সম্প্রতি তার শারীরিক পরিবর্তন লক্ষ্য করে গত ১৫ মার্চ সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালের প্রসূতি ও গাইনী বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে জানান মেয়েটি ৭ মাসের অন্তসত্ত্বা।

সরোজমিনে মেয়েটির সাথে কথা হলে জানায়, গত বছরের ৫ জুলাই বাড়িতে মেরামতের কাজ করার সময় রাজমিস্ত্রি সোলায়মান (২৫) তাকে একা পেয়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ফুসলিয়ে বাড়ি থেকে ২০০-২৫০ গজ দক্ষিণে জনৈক মাদারীর বাঁশঝাড়ে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করেছে।

এরপর এই ঘটনা কাউকে না জানানোর জন্য ভয়ভীতি দেখিয়ে আরও একাধিকবার একই স্থানে নিয়ে ধর্ষণ করেছে। কিন্তু বিয়ে করার প্রলোভনের বিষয়টি ধামাচাপা দিয়ে রেখেছে। এখন অন্তসত্ত্বা হয়ে পড়ায় বিয়ের জন্য বার বার চাপ দিলেও সোলায়মান তাতে রাজি না হয়ে উল্টো অভিযোগ অস্বীকার করছে।

এতে দিনমজুর অসহায় পরিবারটি বিচারের দাবীতে জনপ্রতিনিধিসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের দ্বারে দ্বারে ঘুরেও বিগত ৫ দিনে কোন সুরাহা পায়নি। বরং নানা ধরণের হুমকি ধামকির পেয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতা ও হতাশার মধ্যে পড়েছে।

এমন পরিস্থিতিতে বাধ্য হয়ে থানায় উপস্থিত হয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। মামলা নং- ১৭, তারিখ-২০/০৩/২০২২ ইং। মামলার প্রেক্ষিতে অভিযুক্ত রাজমিস্ত্রি সোলায়মান পলাতক রয়েছে। সে উপজেলার বাঙ্গালীপুর ইউনিয়নের পাটোয়ারিপাড়ার মৃত আহম্মদ আলীর ছেলে।

সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল হাসনাত খাঁন বলেন, বাদীর এজাহারের ভিত্তিতে ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন (সংশোধন /০৩) এর ৯ (১) ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে। ভিকটিমের জবানবন্দি গ্রহনের জন্য আদালতে আবেদন জানানো হবে। আসামী গ্রেফতারে তৎপরতা চালানো হয়েছে।