নওগাঁয় ভ্রাম্যমাণ আদালতে অনুমোদনহীন প্রেগনেন্সি টেস্ট কিট জব্দ ও ২ জনের জেল


DBkhobor24 প্রকাশের সময় : মার্চ ১২, ২০২২, ৬:০৯ PM /
নওগাঁয় ভ্রাম্যমাণ আদালতে অনুমোদনহীন প্রেগনেন্সি টেস্ট কিট জব্দ ও ২ জনের জেল

আতাউর শাহ্, নওগাঁ প্রতিনিধিঃ

নওগাঁয় জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থার গোপন তথ্যের ভিত্তিতে জেলা এনএসআই নওগাঁ ও জেলা প্রশাসন যৌথ অভিযান পরিচালনা করে, নওগাঁর সদর উপজেলার ইঁদুর বটতলী মহল্লায় অনুমোদনহীন আর এন কর্পোরেশন প্রেগনেন্সি টেস্ট কিট তৈরি কারখানায় অভিযান পরিচালনা করা হয়।

শনিবার বেলা ১২টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত অভিযান নওগাঁ শহরের ইঁদুর বটতলী হাজি মনসুর সড়কের পাশ্ববর্তী প্রেগনেন্সি টেস্ট কিট তৈরি কারখানার মালিক অনুপস্থিত থাকায় কারখানাটি সিলগালা করে, প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার মোঃ গুলজার হোসেন (৫০) এবং কেয়ারটেকার মোঃ গোলাম মোস্তফা (মোহন মোল্লা) (৪৩) কে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও ৪ জন কর্মচারীকে ১ হাজার টাকা করে ৪ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় ও প্রায় ১ কোটি টাকা মূল্যের অনুমোদিত প্রেগন্যান্সি টেস্ট কিট এবং তৈরিতে যাবতীয় কেমিক্যালস, যন্ত্রপাতি ও প্যাকিংসামগ্রী জব্দ করা হয়।

অভিযান পরিচালনা কালে উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসন নওগাঁর এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ তাহমিদুল ইসলাম এবং সিভিল সার্জন কার্যালয়ের প্রতিনিধি ডাঃ আশিষ কুমার সরকার, জেলা এন এস আই নওগাঁ উপ পরিচালক, সহকারী পরিচালকসহ অন্যান্য কর্মকর্তা কর্মচারী প্রমূখ।

প্রেগনেন্সি টেস্ট কিট তৈরি কারখানার মালিক পলাতক মোঃ রুবেল হোসেনের বাড়ির নিজতলায় অনিয়মের মাধ্যমে অসৎ উদ্দেশ্যে অনুমোদিতহীন, ভাবে প্রেগন্যান্সি কিট প্রস্তুত ও প্যাকেটজাত করে ঢাকাসহ সারাদেশে বাজারজাত করার অপরাধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে।

উক্ত অভিযানে প্রতিষ্ঠানের (R.N Corporation) মালিক মোঃ রুবেল হোসেন (৩২) এবং মোঃ নবীর হোসেন (৩২) অনুপস্থিত থাকায় প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার সদর উপজেলার খাস নওগাঁ গ্রামের মৃত রহিম উদ্দিনের ছেলে মোঃ গুলজার হোসেন ও উপজেলার চুনিয়াগাড়ী গ্রামের মোঃ মফিজ উদ্দিনের ছেলে কেয়ারটেকার মোঃ গোলাম মোস্তফা (মোহন মোল্লা) কে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে। পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানের ৪ জন কর্মচারীকে ১ হাজার করে মোট ৪ হাজার জরিমানা করে এবং প্রতিষ্ঠানটিকে সিলগালা করে রাখা হয়েছে।

এ সময় প্রতিষ্ঠানের মালিকদ্বয়ের বিরুদ্ধে ওষুধ প্রশাসনের মাধ্যমে মামলা দায়ের করা হবে এবং সে মোতাবেক আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানানো হয়।