ধর্ষনের দায়ে নানার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড


DBkhobor24 প্রকাশের সময় : মার্চ ২৮, ২০২২, ৬:০০ PM /
ধর্ষনের দায়ে নানার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

নাসির উদ্দীন শাহ মিলন নীলফামারীহঃ

টাকার প্রলোভন দেখিয়ে ৫ম শ্রেণির স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে নানা সিরাজুল কে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রদান করেছে নারী শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল – ২ এর বিচারক।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ডিমলা পূর্ব ছাতনা ইউনিয়নের মোহাম্মদ নুর ইসলামের মেয়ে পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রী মনি আক্তার কে ২০১৯ সালের ১১ই মার্চ দুপুরবেলা ৮০ টাকার প্রলোভন দেখিয়ে বাড়ির পাশে ভুট্টা ক্ষেতে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে একই এলাকার নানা মৃত জাবেদ আলীর পুত্র সিরাজুল (৫০)।ধর্ষণের ফলে অতিরিক্ত রক্ত ক্ষরন ও তিব্র ব্যাথায় তাকে ডিমলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে রেফাড করে উন্নত চিকিৎসার জন্য নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন মেয়ের বাবা মোঃ নুর ইসলাম। মামলা নং- নাঃ শিঃ নিঃ ১১৩/১৯। ৩ বছর চলা এ মামলায় সাক্ষ্যপ্রমাণ ও যুক্তিতর্ক শেষে আসামী সিরাজুল এর বিরুদ্ধে ৯/(১) ধারা প্রমানিত হওয়ায় আজ (২৮ মার্চ সোমবার ) দুপুর সাড়ে ১২ টার সময় নীলফামারী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল ২ এর বিজ্ঞ বিচারক মোঃ মাহাবুবুর রহমান আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রদান করেছে।

রাষ্ট্র পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল এর স্পেশাল পি পি রমেন্দ্রনাথ বর্ধন বাপ্পি। তিনি বলেন এই রায়ের ফলে আইনের প্রতি শ্রদ্ধা বেড়ে যাবে সাধারন মানুষের সাক্ষ্যপ্রমাণে অপরাধী প্রমাণিত হওয়ায় তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রদান করেছে আদালত।
এ রায়ে বাদী সন্তুষ্ট । এলাকা বাসীর দাবি ছিল লম্পট নানার শাস্তি । স্বস্তি ফিরে পেয়েছে ডিমলা বাসি।