কুষ্টিয়া মহাসড়কে গ্যাস সিলিন্ডারবাহী ট্রাক বিকল: দীর্ঘ যানজট


DBkhobor24 প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারী ২১, ২০২২, ৭:১৮ PM /
কুষ্টিয়া মহাসড়কে গ্যাস সিলিন্ডারবাহী ট্রাক বিকল: দীর্ঘ যানজট

গ্যাসভর্তি ভারী সিলিন্ডার হওয়ায় ট্রাকটি স্থানীয়ভাবে সরানো সম্ভব হচ্ছে না

জেলা প্রতিনিধি, কুষ্টিয়া।

কুষ্টিয়ায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এলপিজি) সিলিন্ডারবাহী একটি ট্রাক মহাসড়কে আড়াআড়িভাবে বিকল হয়ে পড়ে আছে। এতে দীর্ঘ প্রায় ২৪ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে কুষ্টিয়া-ঈশ্বরদী মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। ফলে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন দক্ষিণ ও উত্তরবঙ্গের ৩২ জেলার যাতায়াতকারী মানুষ।

কুষ্টিয়া চৌড়হাস হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইদ্রিস আলী বলেন, ‘উন্নতমানের বড় ক্রেন ছাড়া এই সিলিন্ডার সরানো সম্ভব হচ্ছে না। যে কারণে দীর্ঘ সময় ধরে মহাসড়ক বন্ধ রয়েছে।

স্থানীয় ও হাইওয়ে পুলিশ সূত্র জানায়, রোববার (২০ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে বাগেরহাটের মোংলা বন্দর থেকে বড় সিলিন্ডারবাহী ১০ চাকার একটি ট্রাক প্রায় ১৭ টন এলপিজি গ্যাস নিয়ে নাটোর যাচ্ছিল। বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে ট্রাকটি কুষ্টিয়া-ঈশ্বরদী মহাসড়কের মিরপুর-বহলবাড়িয়া এলাকায় ভাঙাচোরা সড়কে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের ওপর উল্টে যায়।

ট্রাকটি আড়াআড়িভাবে উল্টে থাকায় উভয় দিকের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এতে উত্তর ও দক্ষিণবঙ্গের একমাত্র যোগাযোগের এই মহাসড়কটির দুই পাশে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। দুর্ঘটনার কারণে মহাসড়ক বন্ধ হয়ে যাওয়ায় চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন যাত্রী ও পরিবহন সংশ্লিষ্টরা।

এদিকে পাবনার জেলা প্রশাসকের উদ্যোগে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের একদল রাশিয়ান এসে সরেজমিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

পরিদর্শন শেষে তারা জানান, ট্রাকটি সরাতে গেলে যে কোনো সময় এলপিজি গ্যাসের বিস্ফোরণ ঘটে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটার ঝুঁকি রয়েছে। এ কারণে তারা ফিরে চলে যান।

অন্যদিকে মহাসড়ক বন্ধ থাকায় এলাকার বিভিন্ন বিকল্প ছোট রাস্তা দিয়ে ভারী যানবাহন চলাচল করছে। এসব সড়কের কয়েক জায়গা ভেঙে গেছে।

হাইওয়ে থানার ওসি ইদ্রিস আলী জানান, সিলিন্ডার সরানোর জন্য স্থানীয়ভাবে সব রকমের চেষ্টা চালানো হচ্ছে। বিস্ফোরণ হলে যাতে ক্ষতি না হয়, সেজন্য উভয় পাশে বালুর স্তুপ করে রাখা হয়েছে। তবে কখন সড়ক স্বাভাবিক হবে, সে বিষয়ে তিনি নিশ্চিত করে কিছু জানাতে পারেননি।

শাহীন আলম/এইচআর/এসএমএস

কুষ্টিয়ার-খবর   যানজট