কলাতলী ঝিরিঝিরি কূয়ায় গৃহবধূর উপর হামলা ও শ্লীলতাহানির অভিযোগ 


DBkhobor24 প্রকাশের সময় : মার্চ ১, ২০২২, ১০:৪৪ PM /
কলাতলী ঝিরিঝিরি কূয়ায় গৃহবধূর উপর হামলা ও শ্লীলতাহানির অভিযোগ 

স্টাফ রিপোটার কক্সবাজার।

কক্সবাজার পূর্ব কলাতলী ঝিরিঝিরি কুয়ায় মনোয়ারা বেগম নামে এক গৃহবধূর উপর হামলা ও শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠেছে এলাকার কিছু চিহ্নিত ইয়াবা কারবারির বিরুদ্ধে।

জানা যায়, গত শনিবার ২৬ ফেব্রুয়ারী এই ঘটনা ঘটে। হামলায় ঐ গৃহবধূ গুরুতর আহত হন। আহত গৃহবধূকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেররণ করেন। আহত গৃহবধূ ঝিরিঝিরি কুয়া এলাকার জাফর আহমেদের স্ত্রী (৩০)। এই ঘটনায় কক্সবাজার সদর মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বলে জানান গৃহবধূর স্বামী জাফর আহমেদ।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, নুরুল ইসলাম বাবুর্চির পুত্র সিরাজুল ইসলামের সাথে চিহ্নিত ইয়াবা কারবারি বিএনপি ক্যাটার দিদারুল আলম ওরফে দিরাজ এর দীর্ঘদিন ধরে বসতভিটার সীমানা সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল। গত ২৫ ফেব্রুয়ারী উক্ত বিরোধ নিষ্পত্তির বিষয়ে ঝিরিঝিরি কুয়া সমাজ কমিটির লোকজনদের মধ্যস্থথায় এক শালিস বৈঠক হয়।

উক্ত বৈঠকে সিরাজুল ইসলামের পক্ষে ভাড়াটিয়া হিসাবে এসে দিদারুল ইসলাম ওরফে দিরাজ, গৃহবধু মনোয়ারা বেগমকে অকথ্য ভাষায় গালি গালাজ করে এবং মারধরের চেষ্টা করলে সমাজ কমিটির লোকজন বিরোধটি স্থায়ীভাবে সমাধানে ব্যর্থ হয়ে আইনের আশ্রয় নেয়ার পরমর্শ দেন।

এরই মধ্যে ২৬ ফেব্রুয়ারী শনিবার সিরাজুল ইসলামের বাড়ির সামনে রাস্তা দিয়ে খাবার পানি নিয়ে আসার প্রাক্কালে পূর্ব থেকে উৎপেতে থাকা সিরাজুল ইসলাম, মোঃ মুফিজ, দিরাজুল ইসলাম দিরাজ, হাবিবুর রহমান, মিলে মনোয়ারা বেগমের উপর হামলা করে।

এসময় লাথি, কিল-ঘুষি মেরে তাকে ব্যপক আঘাত করে এবং শ্বাসরুদ্ধকরে হত্যার চেষ্টাও করে। এক পর্যায়ে প্রতিবেশীরা এসে তাকে উদ্ধার করে। এসময় হামলা কারীরা ভুক্তভোগী মনোয়ারা বেগমের স্বর্ণলংকার চিনিয়ে নেয় বলে জানান ভুক্তভোগী।

ভিকটিম মনোয়ারা বেগমকে হামলার পর কোন ধরনের মামলা না করার জন্য হুমকি দিচ্ছে হামলা কারীরা। এই হামলার বিচার চেয়েছেন ভুক্তভোগী মনোয়ারা বেগম। হামলা কারীরা চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী বলে অভিযোগ করলে, প্রতিনিয়ত হুমকি দিয়ে যাচ্ছে হামলা কারীরা। কক্সবাজার পুলিশ সুপারসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগীতা কামনা করেন ভিকটিম মনোয়ারা।