ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে নীলফামারী সরকারি কলেজের উদ্যোগে আলোচনা সভা


DBkhobor24 প্রকাশের সময় : মার্চ ৭, ২০২২, ৩:৩১ PM /
ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে নীলফামারী সরকারি কলেজের উদ্যোগে আলোচনা সভা

সাকিল ইসলাম, স্টাফ রিপোর্টার নীলফামারী।

বাঙালির ইতিহাসে অবিস্মরণীয় দিন ০৭ ই মার্চ উপলক্ষে নীলফামারী সরকারি কলেজের পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর জন্য শহিদ মিনার ও বদ্ধভূমিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয় ।সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি স্বাধীনতার স্থপতি এই মহান নেতার প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর পর কিছু সময় সেখানে নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন কলেজের অধ্যক্ষ, শিক্ষক, কর্মচারী ও শিক্ষার্থীবৃন্দ।

সোমবার সকালে কলেজে অবস্থিত শহিদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।পরে প্রশাসনিক ভবনে কনফারেন্স রুমে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। মোঃজাহেদুল ইসলাম আহ্বায়ক ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ দিবস উদযাপন কমিটি -২০২২ এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রফেসর মোঃ দিদারুল ইসলাম অধ্যক্ষ নীলফামারী সরকারি কলেজ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, শায়লা পারভীন সম্পাদক শিক্ষক পরিষদ নীলফামারী সরকারি কলেজ। সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মোঃ অহিদুল হক যুগ্ম সম্পাদক শিক্ষক পরিষদ নীলফামারী সরকারি কলেজ। মোঃ সাফিউল বাশার অর্থ সম্পাদক শিক্ষক পরিষদ নীলফামারী সরকারি কলেজ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে, প্রফেসর মোঃ দিদারুল ইসলাম বলেন,১৯৭১ সালের ৭ মার্চ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীনতার ডাক দিয়েছিলেন। ৫১ বছর আগে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে (তৎকালীন রেসকোর্স ময়দান) স্বাধীনতাকামী ৭ কোটি মানুষকে যুদ্ধের প্রস্তুতি নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন, “এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম- এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম।”

তার ওই ভাষণের ১৮ দিন পর পাকিস্তানি বাহিনী বাঙালি নিধনে নামলে শুরু হয় প্রতিরোধ যুদ্ধ। নয় মাসের সেই সশস্ত্র সংগ্রামের পর আসে বাংলাদেশের স্বাধীনতা। সমাপনী বক্তব্যে, মোঃজাহেদুল ইসলাম বলেন,আমাদের সকল কে মুক্তিযোদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানতে হবে।এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারণ করতে হবে। ছাত্র -ছাত্রীদের স্বাধীনতার স্বপক্ষে থাকার আহ্বান জানাচ্ছি।